ঢাকাবুধবার, ৭ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, রাত ৯:৪১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

সরকারি কর্মকর্তাদের ওএসডি নিয়ে হাইকোর্টের রায় স্থগিত

মাহমুদুল হাসান, সাব-এডিটর
জানুয়ারি ২২, ২০২০ ১:৪৪ অপরাহ্ণ
পঠিত: 44 বার
Link Copied!

সরকারি কোনো কর্মকর্তাকে ১৫০ দিনের বেশি ওএসডি (অফিসার অন স্পেশাল ডিউটি) করে রাখা যাবে না বলে হাইকোর্ট যে রায় দিয়েছিল সেটি স্থগিত করেছে সুপ্রিম কোর্টের চেম্বার আদালত।

রাষ্ট্রপক্ষের করা আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে রবিবার শুনানি নিয়ে চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী হাইকোর্টের ওই রায়ের ওপর ৮ সপ্তাহের স্থগিতাদেশ দেন। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল মুরাদ রেজা। রাষ্ট্রপক্ষের অন্য আইনজীবী ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত দাসগুপ্ত দেশ রূপান্তরকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

ওএসডি-সংক্রান্ত জনস্বার্থে একটি রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ২০১২ সালের জুনে হাইকোর্টের জারি করা রুল যথাযথ ঘোষণা করে গত ৮ জানুয়ারি বিচারপতি জুবায়ের রহমান চৌধুরী ও বিচারপতি শশাঙ্ক শেখর সরকারের হাইকোর্ট বেঞ্চ রায় দেয়। রায়ে সরকারি কোনো কর্মকর্তাকে ১৫০ দিনের বেশি ওএসডি করে রাখা যাবে না বলা হয়।

একই সঙ্গে যেসব সরকারি কর্মকর্তাকে ১৫০ দিনের বেশি ওএসডি করে রাখা হয়েছে তাদের স্ব স্ব পদে পুনর্বহালের নির্দেশ দেওয়া হয়। এসব বিষয় পর্যালোচনা ও আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নিতে একটি কমিটি গঠনেরও নির্দেশ দেয় হাইকোর্ট। এরপর হাইকোর্টের এই রায় স্থগিত চেয়ে আপিল বিভাগে আবেদন করে রাষ্ট্রপক্ষ।

ওএসডির সঠিক ব্যবহার হচ্ছে না–এমন যুক্তিতে ২০১২ সালের ৩১ মে সাবেক সচিব আসাফ উদ-দৌলা হাইকোর্টে একটি রিট আবেদন করেন। আবেদনে উল্লেখ করা হয়, ১৯৯১ সালের ৩ অক্টোবর তৎকালীন সংস্থাপন মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনে কী কী কারণে ওএসডি করে রাখা যায়, সে বিষয় ও সময়সীমার কথা বলা রয়েছে।

কিন্তু অনির্দিষ্টকালের জন্য ওএসডি করে রাখা হচ্ছে, যা বেআইনি ও অসাংবিধানিক। সংবিধানের ২০ (২) অনুচ্ছেদ অনুসারে অনুপার্জিত আয় কোনো ব্যক্তি ভোগ করতে পারবে না। কিন্তু যাদের ওএসডি করে রাখা হচ্ছে, তারা কোনো দায়িত্ব ছাড়াই সরকারের কাছ থেকে বেতন-ভাতা ভোগ করছেন। জনগণের ট্যাক্সের অর্থ থেকে তাদের বেতন দেওয়া জনস্বার্থ ও সংবিধান পরিপন্থি।

ওই রিট আবেদনের ওপর প্রাথমিক শুনানি নিয়ে ওই বছরের ৪ জুন রুল জারি করেছিল মির্জা হোসেইন হায়দারের (বর্তমানে আপিল বিভাগের বিচারপতি) নেতৃত্বে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ। রুলে নির্ধারিত কারণ ও সময়ের বাইরে সরকারি কর্মকর্তাদের বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা করে রাখা এবং তাদের জনগণের ট্যাক্সের টাকায় বেতন-ভাতা দেওয়া কেন অসাংবিধানিক ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চাওয়া হয়।

পাশাপাশি ওএসডি করার বিষয়ে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের পক্ষে সুনির্দিষ্ট নীতিমালা কেন করা হবে না রুলে তাও জানতে চাওয়া হয়।

দৈনিক বাংলাদেশ আলো পত্রিকায় প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না