ঢাকামঙ্গলবার, ১৬ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, রাত ৩:১৯
আজকের সর্বশেষ সবখবর

এই দিনে ২৩ জানুয়ারি

মাহমুদুল হাসান, সাব-এডিটর
জানুয়ারি ২৩, ২০২০ ৬:০৮ পূর্বাহ্ণ
পঠিত: 106 বার
Link Copied!

ভারতীয় রাজনীতিবিদ সুভাষচন্দ্র বসুর জন্ম পশ্চিমবঙ্গের চব্বিশ পরগনা জেলায় ২৩ জানুয়ারি ১৮৯৭ সালে। তার বাবার নাম জানকীনাথ বসু ও মা প্রভাবতী দেবী। প্রেসিডেন্সি কলেজে তার উচ্চশিক্ষা শুরু হয়। স্কটিশ চার্চ কলেজ থেকে ডিস্টিংকশনসহ দর্শনশাস্ত্রে অনার্স ডিগ্রি লাভ করেন। আইসিএস পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য তিনি ১৯১৯ সালে ইংল্যান্ড যান এবং পরে ইন্ডিয়ান সিভিল সার্ভিসে যোগ দেন। একসময় সিভিল সার্ভিসে ইস্তফা দিয়ে চিত্তরঞ্জন দাশের নেতৃত্বে ভারতের জাতীয়তাবাদী রাজনীতিতে যোগ দেন। ১৯২৪ সালে তাকে কলকাতা করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিযুক্ত করা হয়। কিন্তু জঙ্গি জাতীয়তাবাদীদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতার জন্য তাকে কারারুদ্ধ করা হয়। স্বাস্থ্যগত কারণে ১৯২৭ সালে তিনি মুক্তি পান। ১৯২৮ সালে কলকাতায় কংগ্রেস দলের স্বেচ্ছাসেবক বাহিনীর প্রধান হিসেবে কাজ করেন। এতে তিনি ও জওয়াহেরলাল নেহরু ভারতের পূর্ণ স্বাধীনতার উদ্যোগে নেতৃত্ব দেন। ১৯৩০ সালে তিনি গান্ধীর লবণ সত্যাগ্রহ আন্দোলনে অংশগ্রহণ করেন এবং আবার কারারুদ্ধ হন। ১৯৩৮ সালে তিনি কংগ্রেস সভাপতি নির্বাচিত হন। পরে দলীয় সিদ্ধান্ত প্রণয়ন প্রক্রিয়ায় তাকে কংগ্রেসের মূল নেতৃত্ব থেকে বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়। স্বয়ং গান্ধী তার বিরুদ্ধে চলে যান। ১৯৪১ সালের ২৬ জানুয়ারি নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু গোপনে কলকাতা ত্যাগ করে রাশিয়ায় যান। ১৯৪৩ সালের ২৫ আগস্ট তিনি ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল আর্মির (আইএনএ) সর্বাধিনায়ক হন এবং আজাদ হিন্দ সরকার গঠনের ঘোষণা করেন। ধারণা করা হয়ে থাকে, ১৯৪৫ সালের আগস্টে এক বিমান দুর্ঘটনায় তিনি নিহত হন।

দৈনিক বাংলাদেশ আলো পত্রিকায় প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না