ঢাকারবিবার, ২৭শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, রাত ৪:৩০
আজকের সর্বশেষ সবখবর

দিনাজপুরে দুশ্চিন্তায় কৃষক সমাজ!!

নিজস্ব প্রতিবেদক
এপ্রিল ২৫, ২০২০ ৪:২৮ অপরাহ্ণ
পঠিত: 44 বার
Link Copied!

দিনাজপুর প্রতিনিধি মোঃ রিয়াদ হাসান আকাশঃ

বর্তমান সারা বিশ্বে করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) এর তান্ডবে দুশ্চিন্তায় সময় পার করছেন বিশ্ববাসী। করোনার এই মহামারীতে বিশ্বের অর্থনৈতিক অবস্থা আজ চরম পর্যায়ে। বাংলাদেশও এর বাইরে নয়। বিশ্বের ন্যায় বাংলাদেশেও করোনার প্রভাব দেশের সবকিছুই এলোমেলো করে দিয়েছে। এর উল্লেখযোগ্য হলো বাংলাদেশের কৃষকের মন-মানষিকতা। হতাশায়, দুশ্চিন্তায় সময় পার করছে বাংলাদেশের কৃষক সমাজ। দিনাজপুরেও একই অবস্থা বিরাজ করছে। হতাশায় ও দুশ্চিন্তায় দিন যাপন করছেন দিনাজপুরের কৃষক সমাজ। করোনার এই তান্ডবের মধ্য দিয়েই ঝলমলে ও সোনালী রঙে সৌন্দর্য বিরাজ করছে দিনাজপুরে কৃষকের ধান। ধান উৎপাদনে দিনাজপুর বরাবরই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে আসছে। এই অঞ্চলের কৃষকের কঠোর পরিশ্রম এই সাফলতা বয়ে আনে। বরাবরের ন্যায় এবারও কঠোর পরিশ্রম করে ধান চাষ করেছেন কৃষকেরা। দেশব্যাপী করোনা ভাইরাসের দুশ্চিন্তার মাঝেও কর্মবীর কৃষকের বিশাল জনগোষ্ঠী খাদ্য চাহিদা মেটাতে দিন-রাত সমানতালে পরিশ্রম করে আসছেন। জমি থেকে এক মুহূর্তের জন্য বসে থাকার সময় নেই কৃষকের।

দিনাজপুরের হাকিমপুর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর সূত্র জানায়, চলতি বোরো মৌসুমে চাষাবাদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল ৭ হাজার ৩২৫ হেক্টর জমিতে। অর্জিত হয়েছে ৭ হাজার ২৩০ হেক্টর জমিতে। এর মধ্যে হাইব্রিড জাতের ধান এক হাজার ৩৪০ হেক্টর, দেশি ৩৩০ হেক্টর ও উফশী জাতের ধান ৫ হাজার ৫৬০ হেক্টর জমিতে রোপণ করেছে কৃষকরা।

বর্তামানে দ্রুতগতিতে বেড়ে চলেছে বোরো ধানের চেহারা। মাঠে মাঠে হাওয়ায় দুলছে ধানের থোড়। আর ১৫/২০ দিনের মধ্যেই ধান কাটা মাড়াই শুরু হবে। করোনার এই চরম পরিস্থিতিতে ধানের ন্যায্য মূল্য পাওয়া নিয়ে হতাশায় আছেন কৃষকেরা। ধানের ন্যায্য মূল্য পেতে সরকারের স্মরণাপন্ন হওয়া ছাড়া অন্য কোন উপায় নেই বলে জানায় কৃষকেরা, তাই সরকারের কাছে জড়ালো নিবেদন এই কৃষক সমাজের। করোনা পরিস্থিতিতে মনিটরিং-এ গেলে ক্যামেরা দেখে সাংবাদিকদের মাধ্যমে, কৃষকেরা সরকারের কাছে অগ্রীম ধানের ন্যায্য মূল্যের দাবী জানায়।

দৈনিক বাংলাদেশ আলো পত্রিকায় প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না