ঢাকাবুধবার, ১৭ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, সন্ধ্যা ৭:৫১
আজকের সর্বশেষ সবখবর

কুড়িগ্রামে মুক্তিযোদ্ধার পরিবারে হামলা!

মাহমুদুল হাসান, সাব-এডিটর
মে ৫, ২০২০ ১০:৩৫ অপরাহ্ণ
পঠিত: 21 বার
Link Copied!

মোঃ আলিমুল ইসলাম জেলা প্রতিনিধি কুড়িগ্রাম।

কুড়িগ্রামের উলিপুরে এক মুক্তিযোদ্ধার সন্তানের পরিবারের উপর হামলার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ওই মুক্তিযোদ্ধার সন্তান থানায় অভিযোগ করেছেন। ঘটনাটি ঘটেছে, নেফড়া কাঁঠালীপাড়া গ্রামে।অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার গুনাইগাছ ইউনিয়নের নেফড়া কাঁঠালীপাড়া গ্রামের নুর ইসলামের স্ত্রী মুক্তিযোদ্ধার সন্তান মনোয়ারা বেগমের সাথে প্রতিবেশি আবু বক্কর সিদ্দিক ও আব্দুল কুদ্দুস গংদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বাড়ির সীমানা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল।এ ঘটনায় মনোয়ারা বেগম তাদের বিরুদ্ধে ২ বছর পূর্বে মামলা করলে সেই মামলা আদালতে বিচারাধিন থাকা অবস্থায় গত ২৬ এপ্রিল বিবাদিরা পূণরায় মনোয়ারা বেগমের বাড়িতে হামলা চালিয়ে স্বামী নুর ইসলাম ও সন্তান মেজবাউলকে পিটিয়ে আহত করে। পরে ওই দিন দুপুরে এলাকাবাসীর সহায়তায় তাদেরকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়। এ ঘটনায় মুক্তিযোদ্ধার সন্তান মনোয়ারা বেগম ২ মে উলিপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।মনোয়ারা বেগম বলেন, অভিযোগ করার কয়েকদিন পেরিয়ে গেলেও থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তদন্ত করলেও কার্যত কোন ব্যবস্থা নেননি। এ অবস্থায় গোটা পরিবার নিয়ে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। এদিকে ঘটনার প্রতিকার চেয়ে মঙ্গলবার বিকালে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে সাবেক কমান্ডার ফয়জার রহমানের কাছে অভিযোগ করেন তিনি।ঘটনার তদন্তকারী কর্মকর্তা এএসআই বকুল খাঁন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এ বিষয়ে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ কে অবগত করেছি। বিষয়টি আইনগত ভাবে প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।উপজেলা কমান্ডের সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার এমডি ফয়জার রহমান বলেন, “মুক্তিযোদ্ধার সন্তান মনোয়ারা বেগম মঙ্গলবার বিকালে এসে সমস্ত ঘটনা আমাকে জানিয়েছেন। বিষয়টি আমি থানা কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বলেছি।”উলিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন,”অভিযোগ পেয়েছি,বিষয়টির দ্রুতই আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।”

দৈনিক বাংলাদেশ আলো পত্রিকায় প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না