ঢাকারবিবার, ৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, রাত ১:৩৫
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চট্টগ্রাম অক্সিজেনে় এক নারীকে বাসে তুলে পালাক্রমে ধর্ষণ গ্ৰেফতার দুজন।

মাহমুদুল হাসান, সাব-এডিটর
জুন ১২, ২০২০ ৩:১২ অপরাহ্ণ
পঠিত: 65 বার
Link Copied!

প্রকাশ দেব চট্টগ্রাম

 

 

 

নগরীর বায়েজিদ থানাধীন এলাকা থেকে বেভারেজ কোম্পানির এক নারীকর্মী ধর্ষণ মামলার আরো দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। অক্সিজেন রেলবিট এলাকায় অভিযান চালিয়ে গতকাল বুধবার (১০ জুন) বিকেল সাড়ে ৫টায় তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার দুই আসামি হল- মো. শাহজাহান (২০) ও মো. মিজান (১৯)।

 

র‌্যাব জানায়, গত রবিবার (৭ জুন) একটি বেভারেজ কোম্পানির এক নারীকর্মী তার এক সহকর্মী নিয়ে নগরীর অক্সিজেন মোড়ে বাসস্ট্যান্ডে অপেক্ষা করছিলেন। প্রচণ্ড বৃষ্টির শুরু হলে তিনি ও তার সহকর্মী একটি দোকানের সময় আশ্রয় নেন। এ সময় মো. ইসমাইল হোসেন নামের ওই যুবক ওই নারীকে জোর করে বাসে তুলে নিয়ে ধর্ষণ করে। একইসাথে তার সাথে থাকা শাহজাহান ও মিজান ওই নারীর সহকর্মীকে মারধর করে মোবাইলসহ টাকা-পয়সা ছিনিয়ে নেয়। পরে ধর্ষক ইসমাইল ওই নারীকে প্রাণে মেরে ফেলবে বলে ভয় দেখালে তিনি আর ওইদিন মামলা করেননি। পরদিন মঙ্গলবার (৮ জুন) ওই নারী র‌্যাব ৭ অফিসে এসে অভিযোগ করেন। এর পরপরই মামলার আসামিকে ধরতে অভিযানে নামে র‌্যাব। ঘটনাস্থল ও আশপাশের এলাকায় নজরদারি বাড়ানোর মাধ্যমে ধর্ষককে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। পরে ধর্ষণের শিকার ওই নারী ও তার সাথে থাকা সহকর্মী গ্রেপ্তার আসামিকে শনাক্ত করেন। পরবর্তীতে র‌্যাব আবারও ওই আসামির সহযোগীদের গ্রেপ্তারে অভিযানে নামে। অক্সিজেন রেলবিট এলাকায় আসামির সহযোগীরা অবস্থান করছে- এমন তথ্যের ভিত্তিতে গতকাল বুধবার (১০ জুন) বিকেল সাড়ে ৫টায় অভিযান চালায় র‌্যাব। এ সময় র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে পালানোর চেষ্টা করলে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। পরে র‌্যাবের ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে তারা ধর্ষণে সহযোগিতা করার কথা স্বীকার করে।

 

র‌্যাব আরও জানায়, গ্রেপ্তারকৃত মো. শাহজাহান চট্টগ্রাম জেলার ভুজপুর থানার আব্দুর রহিম বাড়ির আব্দুর রহিমের ছেলে ও অপর আসামি মো. মিজান রাউজান থানার নদীমপুরের মরহুম বেলাল উদ্দিনের ছেলে। তাদের বিরুদ্ধে ধর্ষণে সহযোগিতা করার অপরাধে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার জন্য নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে তাদের বায়েজিদ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে বলেও জানায় র‌্যাব।

দৈনিক বাংলাদেশ আলো পত্রিকায় প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না