ঢাকাবুধবার, ১৭ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, সন্ধ্যা ৭:৩৮
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ফেনীতে করোনার (COVID-19) উপসর্গে চারজনের মৃত্যু!

বিডি আলো ডেস্ক
জুন ২৪, ২০২০ ২:১৭ অপরাহ্ণ
পঠিত: 30 বার
Link Copied!

 মোঃ মেহেদী হাসান★ফেনী জেলা প্রতিনিধি 

ফেনীতে জ্বর-শ্বাসকষ্ট সহ করোনা উপসর্গ নিয়ে একদিনে চারজনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে দুইজন ফেনী জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায়, একজন বেসরকারি হাসপাতালে এবং একজন নিজ বাড়ীতে মারা গেছেন।

ফেনী জেনারেল হাসপাতাল সূত্র জানায়, বিরেন্দ্র বরুন (৬৫) নামে এক ব্যক্তি জ্বর-শ্বাসকষ্ট নিয়ে সোমবার রাত সাড়ে ১০ টায় হাসপাতালে ভর্তি হয়। তার বাড়ী নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলায়। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

একইদিন রাত ১০টার দিকে নুরুল ইসলাম (৮৪) নামে এক ব্যক্তি জ্বর-শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। তিনি ফেনী পৌরসভার একাডেমি এলাকার বাসিন্দা হিসেবে হাসপাতালের রেজিষ্ট্রারে নাম লিখেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক ঘন্টা পর রাত ১১টার দিকে মারা যান।

ফেনী জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) মো. ইকবাল হোসেন ভূঁঞা গতকাল মঙ্গলবার সকালে ও সোমবার রাতে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় নুরুল ইসলাম ও বিরেন্দ্র বরুন নামে দুই ব্যক্তি জ্বর-শ্বাসকষ্টসহ করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, গত তিনদিন নোয়াখালী আবদুল মালেক উকিল মেডিকেল কলেজে নমুনা পরীক্ষা বন্ধ থাকায় ও নমুনা গ্রহন না করার কারনে ওই দুই রোগীর নমুনা সংগ্রহ করা হয়নি। তবে মৃত্যুর পর দুই রোগীর স্বজনদের স্বাস্থ্য বিধি মেনে কবর দেওয়া ও সৎকারের জন্য বলা হয়েছে।

এদিকে দাগনভূঞা উপজেলার রাজাপুর ইউনিয়নের কামারপুকুরিয়া গ্রামের আহছান উল্যাহ (৫০) জ্বর কাশি ও শ্বাসকষ্টসহ করোনা উপসর্গ নিয়ে সোমবার মধ্যরাতে মারা যান। উপজেলার পূর্বচন্দ্রপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মাসুদ রায়হান ওই মৃত ব্যক্তির বাড়ীর ইউপি সদস্য নুরুল ইসলামের বরাত দিয়ে জানান, তিনি গত কয়েক দিন জ্বর-কাশি ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। ফেনী জেনারেল হাসপাতালে নেওয়ার পথে রাত ১টার দিকে পথিমধ্যে মারা গেছেন। মঙ্গলবার বিকেলে তিনিসহ (মাসুদ রায়হান) স্বেচ্ছাসেবকরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে গ্রামের পারিবারিক কবরস্থনে লাশ দাফন করেন।

অপরদিকে ফেনী শহরের একাটি বেসরকারি হাসপাতালে উপসর্গ নিয়ে নজরুল ইসলাম (৪৫) নামে একব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। দীর্ঘদিন ধরে তিনি জ্বর-কাশিতে ভুগছিলেন। তিনি উপজেলার চর চান্দিয়া ইউনিয়নের পূর্ব বড়ধলী এলাকার বাসিন্দা ছিলেন।

পারিবারিক সূত্র জানায়, নজরুল ইসলাম গত ১৪-১৫দিন ধরে জ্বর ও কাশিতে ভুগছিলেন। তিনি বাড়িতে থেকে স্থানীয় ভাবে চিকিৎসা নিয়েছেন। কিন্তু গতকাল সকালে জ্বর ও কাশি বেড়ে গিয়ে তাঁর শ্বাসকষ্ট শুরু হলে পরিবারের লোকজন তাঁকে ফেনী শহরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করায়। দুপুরে সেখানে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

চরচান্দিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মোশারফ হোসেন বলেন, মঙ্গলবার দুপুরে তার ইউনিয়নের পূর্ব বড়ধলী এলাকার বাসিন্দা নজরুল ইসলাম নামে একব্যক্তি করোনার উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে মারা যান। তিনি বেশ কিছুদিন ধরে জ্বর ও কাশিসহ শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। মৃত্যুর পর পরিবারের সদস্যরা তার লাশ বাড়িতে নিয়ে আসেন। বিকেলে বিশেষ ব্যবস্থাপনায় তার লাশ পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. উৎপল দাশ বলেন, করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া নজরুল ইসলাম করোনায় আক্রান্ত ছিলেন কিনা তা পরীক্ষা করার জন্য মৃত্যুর পর তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

দৈনিক বাংলাদেশ আলো পত্রিকায় প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না