ঢাকাশুক্রবার, ২৭শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, সকাল ৮:২৮
আজকের সর্বশেষ সবখবর

রাঙ্গুনিয়ায় অজ্ঞাত পরিচয়ে চাঁদাবাজি সন্দেহ ভূমিদস্যু অথবা পাহাড়ি সংগঠন।

মাহমুদুল হাসান, সাব-এডিটর
জুন ২৭, ২০২০ ৩:৪৬ অপরাহ্ণ
পঠিত: 26 বার
Link Copied!

প্রকাশ দেব, চট্টগ্রাম।

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় পাহাড়ী জমির মালিকানার ৫০ ব্যক্তির কাছে চাঁদা চেয়ে চিরকুট পাঠানোর ঘটনায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। এই নিয়ে স্থানীয়দের মাঝে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। ১৪ জুন এই চিরকুট পাঠালেও বিষয়টি রাঙ্গুনিয়া থানা পুলিশকে জানালে ঘটনাটি জানাজানি হয়। উপজেলার দক্ষিণ রাজানগর ইউনিয়নের ৫, ৬,৮ ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডের ৫০ জন বাসিন্দা এই চিরকুট পান। তাঁদের সবার পাহাড়ী এলাকায় জমি ও পুকুর রয়েছে। চিরকুটটি কম্পিউটার টাইপ করা হলেও যিনি পাবেন ওই ব্যক্তির নাম, টাকার সংখ্যা, তারিখ ও যোগাযোগের মুঠোফোন নাম্বার হাতে লেখা। স্বাক্ষরের নিচে ইংরেজীতে এস বি লেখা। যোগাযোগের মুঠোফোন নাম্বারটি বন্ধ। টাকা পাঠাতে না পারলে ভবিষ্যতে সংগঠনকে দায়ী করা যাবেনা চিরকুটে উল্লেখ করা হয়। জানতে চাইলে রাঙ্গুনিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম বলেন, ” চাঁদা চেয়ে চিরকুট পাঠানোর বিষয়ে ঘটনাস্থলে গিয়েছি। কারা চাঁদা চেয়ে চিরকুট পাঠালো তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। এসব এলাকায় পুলিশী তৎপড়তা রয়েছে। এছাড়া স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও সদস্যদের সজাগ থাকতে বলা হয়েছে। বিষয়টি আমরা উধ্বর্ত্বন মহলকে জানিয়েছি । ” জানতে চাইলে দক্ষিণ রাজানগর ইউপি(ইউনিয়ন পরিষদ) চেয়ারম্যান আহামদ ছৈয়দ
তালুকদার বলেন, ” যাদের চিরকুট দেয়া হয়েছে তাঁদের পাহাড়ে জমি রয়েছে। রাঙামাটি পার্বত্য জেলার কাপ্তাই উপজেলার সীমান্তবর্তীর সাথে এসব জমি। কৃষকরা পাহাড়ী জমিতে চাষাবাদ করতে গেলে ক্ষুদ্র নৃ গোষ্ঠীর কয়েকজন তরুন এসব চিরকুট ধরিয়ে দেয়। চিরকুটে একেক জনকে ১০ হাজার থেকে ৫ লাখ পর্যন্ত চাঁদা দাবি করা হয়। যাদের কাছ থেকে চাঁদা চাওয়া হয়েছে তাঁরা এতদিন ভয়ে কাউকে বলেনি। আমি জানার পর বিষয়টি রাঙ্গুনিয়া থানা পুলিশকে জানিয়েছি।

দৈনিক বাংলাদেশ আলো পত্রিকায় প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না