দিনাজপুরের হিলিতে আমদানির প্রভাবে কমেছে ধান ও চালের দাম!!


মাহমুদুল হাসান, সাব-এডিটর প্রকাশের সময় : জানুয়ারী ১২, ২০২১, ৫:০০ পূর্বাহ্ন /
দিনাজপুরের হিলিতে আমদানির প্রভাবে কমেছে ধান ও চালের দাম!!

দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ মোঃ রিয়াদ হাসান আকাশঃ

দিনাজপুরের হিলিতে আমদানির প্রভাবে কমেছে ধান ও চালের দাম। খাদ্য শষ্যের ভান্ডার হিসেবে পরিচিত উত্তরের জনপদ দিনাজপুর জেলা।

এই জেলার বেশিরভাগ উপজেলায় প্রচুর পরিমাণে ধান চাষ হয়। সম্প্রতি আমন ধান কাটাই-মাড়াই শেষে বোরো চাষের জন্য জমি তৈরি সহ নানা কাজে ব্যস্ত এখানকার কৃষকেরা। এরই মাঝে ভারত থেকে চাল আমদানি শুরু হওয়ায় হতাশ হয়ে পড়েছেন কৃষকেরা।
ইতিমধ্যে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে চাল আমদানি শুরুর একদিন পরেই স্থানীয় খুচরা
বাজারে কমেছে চালের দাম, সেই সাথে কমেছে ধানের দাম। আর এতে বিপাকে
পড়েছেন হিলি প্রান্তিক কৃষক ও ব্যবসায়ীরা। যদিও ধানের দাম কমে যাওয়ায়
কৃষকদের কিছুটা লোকসান গুনতে হবে, তবে চালের দাম কমায় স্বস্তি ফিরেছে
দিনমজুরদের মাঝে।
বর্তমানে চাল আমদানির প্রভাবে সবধরনের চালের দাম কমেছে। প্রকারভেদে প্রতি
কেজি চালে কমেছে ৪ থেকে ৫ টাকা। দুই দিন আগে স্বর্ণা-৫ জাতের চাল
বিক্রি হয়েছে প্রতি কেজি ৪৮ টাকা দরে, সেই চাল এখন কেজিতে ৪ টাকা কমে
বিক্রি হচ্ছে ৪৪ টাকা দরে। ৪৫ টাকার গুটি স্বর্ণা বিক্রি হচ্ছে ৪২ টাকায়, ৫৮
টাকা মিনিকেট চাল বিক্রি হচ্ছে ৫৪ টাকা এবং ৬০ টাকার কাটারি জাতের চাল
বিক্রি হচ্ছে ৫৫ টাকা কেজি দরে।
অন্যদিকে ধানের বাজারেও নেমেছে ধ্বস, কয়েক দিনের ব্যবধানে সব ধরনের ধানের দাম কমেছে মণ প্রতি ১’শ থেকে ১’শ ৫০ টাকা । স্বর্ণা-৫ জাতের ধান কেনা-বেচা হতো মণ প্রতি ১ হাজার ২২০ টাকা, সেই ধান এখন মণ প্রতি ১৩০ টাকা কমে বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার ৯০ টাকায়, ১ হাজার ১৫০ টাকার গুটি স্বর্ণা বিক্রি
হচ্ছে ৯৯০ টাকায়, ১ হাজার ২৫০ টাকার রঞ্জিত বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার ১৫০ টাকায়
এবং বাংলাদেশে নামকরা উত্তরের আতব জাতের ধান যা প্রথম দিকে বিক্রি হয়েছে ১হাজার ৯০০ টাকায় তা বর্তমানে বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার ৬৫০ টাকা দরে। ধানের দাম কমে যাওয়ায় খরচ তোলা নিয়ে দুশ্চিন্তায় আছেন কৃষকরা।