ভালোবাসার টানে নারায়ণগঞ্জ থেকে ভোলায়, ধর্মান্তরিত হয়ে ববিতা রাণী এখন মরিয়ম বিবি


মাহমুদুল হাসান, সাব-এডিটর প্রকাশের সময় : ফেব্রুয়ারী ৭, ২০২১, ৯:০৩ অপরাহ্ন /
ভালোবাসার টানে নারায়ণগঞ্জ থেকে ভোলায়, ধর্মান্তরিত হয়ে ববিতা রাণী এখন মরিয়ম বিবি

ভোলা জেলা প্রতিনিধিঃ

প্রেম ভালোবাসা কখনো জাত গোত্র মেনে হয় না, ভালোবাসার কাছে সব অন্ধ। তেমনি এক দৃষ্টান্ত দেখালেন কিশোরগঞ্জ জেলার অষ্টগ্রাম থানার সাপাংকর গ্রামের শুনীল দত্তদাস ও শুক্রা রাণী দাসের মেয়ে ববিতা রাণী।
ববিতা রাণীর মাতা শুক্রা রাণী দাস ববিতা কে ছোট রেখেই মৃত্যুবরণ করেন।
মা মারা যাওয়ার পর বাবা আর খোঁজখবর রাখেনি, ববিতা বড় হোন ঢাকা নারায়ণগঞ্জে নানী ও মামার কাছে।
মামার পরিবার অস্বচ্ছল থাকায় ববিতা রাণী কাজ করেন নারায়ণগঞ্জের একটি ছোট্র গার্মেন্টস ফ্যাক্টরিতে, ওই গার্মেন্টসই কাজ করতো ভোলা সদর উপজেলার পশ্চিম ইলিশা ৬নং ওয়ার্ডের সামছুদ্দিন মিয়ার ছেলে রিয়াজ হোসেন।
এক পর্যায়ে রিয়াজের সাথে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন ববিতা রাণী দাস, রিয়াজ মুসলমান ববিতা হিন্দু উভয়-উভয়ের আলাদা ধর্ম জেনেই প্রেমে জড়িয়ে পড়েন।
আস্তে আস্তে রিয়াজের ধর্মের প্রতি অথাৎ শান্তির ধর্ম ইসলামের প্রতি দূর্বল হয়ে যান ববিতা রাণী দাস।
এক পর্যায়ে ববিতা সিদ্ধান্ত নেয় সে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করবেন, ববিতার সিদ্ধান্ত অনুযারী রিয়াজ ও ববিতা ভোলায় এসে একজন মাওলানার মাধ্যমে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে, গত ৩ই ফেব্রুয়ারি -২১ ভোলার নোটারী পাবলিক আইনজীবী এডভোকেট অহিদুর রহমান এর মাধ্যমে ভোলার কোর্টে এফিডেভিট করে ববিতা নাম পরিবর্তন করে মরিয়ম বিবি রাখেন।
বর্তমানে ববিতা রাণীর বদলে ইসলাম ধর্মগ্রহণ করায় তার নাম মরিয়ম বিবি।
ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে ইসলামের শরিয়ত মোতাবেক রিয়াজ কে বিয়ে করেন মরিয়ম বিবি।
এদিকে হিন্দু থেকে মুসলমান হয়ে মরিয়ম বিবি ইসলামের সকল নিয়ম মেনে চলার চেষ্টা করছেন, মরিয়ম বিবির ব্যবহার ও ইসলাম ধর্মগ্রহণ করায় খুশি রিয়াজের পরিবার, তারা পুত্রবধূ হিসেবে মরিয়ম বিবি কে মেনে নিয়েছেন।
মরিয়ম বিবি বলেন, আমি অনেক আগ থেকেই ইসলাম ধর্মের মানুষের সাথের চলাফেরা করে, ভালো লেগেছে কিন্তু তখন সুযোগ হয়নি, এখন যেহেতু জীবন সঙ্গী হিসেবে রিয়াজ কে পেয়েছি তাই ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছি এবং এই ধর্ম মেনে চলার চেষ্টা করছি।
তিনি আরো বলেন, আমার আত্মীয়-স্বজনরা আমাকে নিতে এসেছেন আমি তাদের বলে দিয়েছি,আমি ইসলাম ধর্মগ্রহণ করেছি, তোমাদের কাছে আর যাবো না।
রিয়াজ এর চাচা শাহজাদা বলেন, আমার ভাতিজার মাধ্যমে যেহেতু এই মেয়েটি ইসলাম ধর্মগ্রহণ করেছে, এতে আমাদের পরিবারের সবাই খুশি, আমরা পুত্রবধূ হিসেবে মেনে নিয়েছি।