নীলক্ষেত অবরোধ করে ৭ কলেজের শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ


মাহমুদুল হাসান, সাব-এডিটর প্রকাশের সময় : ফেব্রুয়ারী ২৪, ২০২১, ১২:০৯ অপরাহ্ন /
নীলক্ষেত অবরোধ করে ৭ কলেজের শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

তাজমীর হোসাইন, বিশেষ প্রতিনিধি:

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত রাজধানীর সরকারি সাত কলেজের চলমান পরীক্ষা পেছানো এবং ক্যাম্পাস ও হল খুলে দেয়ার দাবিতে ব্যস্ততম নীলক্ষেত মোড় অবরোধ করে দ্বিতীয় দিনের মতো বিক্ষোভ করছেন শিক্ষার্থীরা। আজ বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৯টা থেকে শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ বিক্ষোভ শুরু করেন।

২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, কোনো কারণ ছাড়াই স্থগিত করা হয়েছে তাদের পরীক্ষা। শিক্ষার্থীরা আরও অভিযোগ করে জানান, স্নাতক চতুর্থ বর্ষের মাত্র একটি পরীক্ষা বাকি ছিলো। এ অবস্থায় সরকারের পরীক্ষা স্থগিতের সিদ্ধান্ত তাদের শিক্ষা জীবন ও পরবর্তী কর্মজীবনকে অনিশ্চয়তার মধ্যে ফেলে দিয়েছে। এমন সিদ্ধান্তকে সরকারের চরম উদাসীনতা বলেও অভিযোগ করে শিক্ষার্থীরা।

এদিকে, নীলক্ষেত মোড় অবরোধ করে বিক্ষোভ করায় আজিমপুর থেকে সায়েন্সল্যাব মোড় পর্যন্ত তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। এতে, সকাল থেকেই ভোগান্তিতে পড়েছেন যাত্রীরা।

এর আগে, গতকাল সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত সাত কলেজের সব পরীক্ষা স্থগিতের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এরপরই আন্দোলনে নামে শিক্ষার্থীরা। নীলক্ষেত মোড় অবরোধের পর রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে সড়ক অবরোধ করেন শিক্ষার্থীরা। এরমধ্যে মহাখালী তিতুমীর কলেজের সামনেও সড়ক অবরোধ করে পরীক্ষা নেয়ার দাবিতে বিক্ষোভ করেন শিক্ষার্থীরা।

দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্যাম্পাস ও হল খুলে দেয়ার দাবিতে চলমান আন্দোলনের মধ্যে গেল সোমবার অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ও হল খুলে দেয়ার তারিখ ঘোষণা করে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি জানান, ঈদুল ফিতরের পর ২৪ মে দেশের সকল বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেয়া হবে এবং ক্যাম্পাস খোলার ৭ দিন আগে অর্থাৎ ১৭ মে আবাসিক হল খুলে দেয়া হবে। তবে, হলে ওঠার আগে আবাসিক শিক্ষার্থী, শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের করোনার টিকা নিতে হবে বলেও জানান শিক্ষামন্ত্রী।