রংপুরে স্বর্ণের আন্তঃজেলা প্রতারণাকারী চক্রের সদস্য গ্রেফতার


বিডি আলো ডেস্ক প্রকাশের সময় : মে ২৪, ২০২১, ১০:১৬ অপরাহ্ন /
রংপুরে স্বর্ণের আন্তঃজেলা প্রতারণাকারী চক্রের সদস্য  গ্রেফতার
জুবেল আরেফিন রংপুর ব্যুরো চিফঃ
স্বপ্নে প্রাপ্ত স্বর্ণের মূর্তি বলে পিতল বা কাসার মূর্তি দিয়ে অভিনব কায়দায় আন্তঃজেলা প্রতারণা চক্রের দুই সদস্য কে রংপুর মেট্রোপলিটনের চৌকস একটি দল গ্রেফতার করে।
কিছুদিন পূর্বে অপরাধের ভুক্তভোগী আলু ব্যবসায়ী মাসুদ রানা (৩৬), পিতা- মোঃ নজরুল ইসলাম, সাং-দেউতি গিলাপাড়া,থানা- পীরগাছা, জেলা- রংপুর এর প্রতারক মোঃ রুবেল (৩০), পিতা- মোঃ আবু সাইদ, সাং- কামাল কাছনা চিড়ার মিল, ওয়ার্ড নং-২৪, থানা- কোতয়ালী, রংপুর মহানগর এর সাথে পরিচয় হয়। রুবেলের মাধ্যমে কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী থানা হতে আগত রাজমিস্ত্রী ১। মোঃ মিরাজুল ইসলাম (২৮), পিতা- মোঃ রহমত আলী, সাং- চর বেরুবাড়ী,থানা- নাগেশ্বরী, জেলা-কুড়িগ্রাম এর সাথে বাদীর পরিচয় হয়। পরবর্তীতে মোঃ মিরাজুল ইসলাম এর সাথে রুবেলের ফোনালাপ হয় এবং মিরাজুল জানায় দুপচাঁচিয়া থানা, বগুড়ায় তার পরিচিত মনসুর ফকির নামক এক ব্যক্তির খালা স্বপ্নের মাধ্যমে একটি স্বর্ণের মূর্তি পেয়েছেন। মূর্তিটি অনেক দামি ও বিরল। ভালো গ্রাহক পেলে মূর্তিটি বিক্রয় করবেন। তখন রুবেল তার বন্ধু মোঃ আবুল হোসেন খুশু (৩০) ও (খ) মোঃ সুজন মিয়াদের (৩০) সাথে আলোচনা করে এবং তাদের মাধ্যমে বাদী বিষয়টি অবগত হয়। পরবর্তীতে মূর্তিটি দেখার জন্য গত ২৮/০৪/২০২১ খ্রিঃরাত আনুমানিক ১০.৩০ ঘটিকার সময় মাহিগঞ্জ থানাধীন আমতলি মোড় এর পূর্ব পাশে পীরগাছাগামী রোডস্থ ফাকা রাস্তায় রুবেলের মাধ্যমে বগুড়ার দুপচাচিয়া থেকে আগত মনসুর ফকির ও গ্রেফতারকৃত আসামী মিরাজুল এর মাধ্যমে বাদীকে একটি কথিত স্বর্ণের মূর্তি দেখানো হয়। স্বর্ণ মূর্তির বিষয়ে বিশ্বাস অর্জনের জন্য প্রতারক চক্রটি বাদীকে কথিত স্বর্ণের মূর্তি থেকে ছোট্ট এক টুকরো কৌশলে ভেঙে দেন। বাদী স্বর্ণের টুকরাটি নিকটস্থ স্বর্ণকার দ্বারা পরীক্ষা করিয়ে প্রকৃত স্বর্ণ বিষয়ে আশ্বস্ত হন। এরপর  রাতে বাদী মাসুদ রানা সরল বিশ্বাসে উক্ত মূর্তিটি ক্রয় করার ইচ্ছা পোষণ করলে মূর্তিটির দাম ৪,০০,০০০/- (চার লক্ষ) টাকা দর ঠিক করে  ২,৬০,০০০ (দুই লক্ষ ষাট হাজার) টাকা মনসুর ফকিরকে প্রদান করেন। কিন্তু পরোক্ষণেই প্রতারক চক্রের সদস্যদ্বয় বাদীর সরল বিশ্বাসের সুযোগ নিয়ে মূর্তিটি প্রদান না করে টাকা নিয়ে কৌশলে পলিয়ে যায়। বিষয়টি মাসুদ রানা তার বিশ্বস্ত লোকজনদের অবহিত করলে তারা তাকে আইনগত সহায়তা নেওয়ার পরামর্শ প্রদান করে।
এ ঘটনা থানায় অভিযোগ দায়ের করলে, রংপুর মেট্রোপলিটন ডিবি পুলিশ প্রতারক চক্রের সদস্যদের সনাক্তকরণ ও গ্রেফতারের উদ্দেশ্যে বিভিন্ন কার্যক্রম হাতে নেয়। এরই ধারাবাহিকতায় গত ২২/০৫/২০২১ খ্রিঃ রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিবি) কাজী মুত্তাকী ইবনু মিনানের নির্দেশনায় সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার (ডিবি) মোঃ ফারুক আহমেদ, পুলিশ পরিদর্শক (নিঃ) মোঃ ছালেহ্ আহাম্মদ পাঠান, এসআই (নিঃ) বাবুল ইসলাম, এসআই (নিঃ) ছাইয়ুম তালুকদার সহ ডিবি পুলিশের একটি চৌকস দল কুড়িগ্রাম জেলার নাগেশ্বরী থানাধীন বেরুবাড়ি এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে প্রতারক মোঃ মিরাজুল ইসলামকে গ্রেফতার করে। প্রতারক চক্রের সকল সদস্যদের গ্রেফতারের লক্ষ্যে ডিবি পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। এ বিষয়ে ভুক্তভোগী বাদী হয়ে মাহিগঞ্জ থানায় একটি নিয়মিত মামলা রুজু হয়েছে। যা মাহিগঞ্জ থানার মামলা নং-১২, তাং-২৪.০৫.২০২১,  ধারা- ৪০৬/৪২০ পেনাল কোড।