রংপুর পীরগঞ্জে করতোয়া নদীতে অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন


মাহমুদুল হাসান, সাব-এডিটর প্রকাশের সময় : সেপ্টেম্বর ১২, ২০২১, ৯:২৬ অপরাহ্ন /
রংপুর পীরগঞ্জে করতোয়া নদীতে অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন

জুবেল আরেফিন রংপুর ব্যুরো চিফঃ

রংপুর পীরগঞ্জে করতোয়া নদীতে অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন।
রংপুর জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার ৬নং টুকুরিয়া ইউনিয়নে দক্ষিণ দুর্গপুর, মোনাইল, টিয়োরমারী,বিসনা সাতোয়া মৌজায় করতোয়া নদী থেকে ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের মহাউৎসব চলাচ্ছে প্রভাবশালীরা। এতে ফসলি জমি এবং ঘরবাড়ি হুমকির মুখে পড়েছে। ভুক্তভোগী টিয়োরমারী গ্রামের শাহাদাত হোসেন বলেন করতোয়া নদী থেকে অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন বন্ধ না করলে আমাদের অনেক কৃষি জমি নদীগর্ভে বিলিন হয়ে যাবে তাই আমি এক সচেতন নাগরিক হিসেবে আমাদের পীরগঞ্জের অভিভাবক জাতীয় সংসদের স্পিকার, ডাঃশিরীন শারমিন চৌধুরীর সহ সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগের জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করছি।
এলাকায় বসবাস কারী ফারুক বলেন প্রভাবশালী বালু ব্যবসায়ীরা উপজেলা খালাশপীর হাটের পশ্চিম পাশে করতোয়া নদীর তীরবর্তী কয়েক মৌজায় অন্তত ২০টি স্থানে ড্রেজার ও শ্যালো মেশিন বসিয়ে অবাধে বালু তুলছেন। শুধু মাত্র দুর্গাপুর মৌজায় কয়েকশ মিটারের মধ্যে প্রতিদিন ৮/১০ টি ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন চলছে। টিয়োরমারী গ্রামে লুৎফর রহমান বলেন, বালু উত্তোলনের কারনে নদীর তীরে রাস্তায় বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে এবং বিভিন্ন স্থানে ফসলী জমিতে ধসের সৃষ্টি হয়েছে। তাই শুধু মাত্র অবৈধ ড্রেজার বন্ধ না করলে আমরা বাঁচব না। জমিগুলোকে বাচাতে হলে নদী তীর ব্লক দিয়ে বেধে দিতে হবে তা না হলে আমাদের সব জমি নদী গর্ভে বিলিন হয়ে যাবে। টিয়োরমারি, করতোয়া নদীর তীরবর্তী বাসিন্দারা আরও জানান, প্রভাবশালী বালু ব্যবসায়ীদের অনুরোধ সত্ত্বেও বালু উত্তোলন অব্যাহত রেখেছেন। সারা দিনরাত ট্রাকে বালু পরিবহন করায় গ্রামীণ সড়কগুলো ধসে চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়ছে। প্রভাবশালী বালু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে স্থানীয় প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধির কাছে অভিযোগ করে প্রতিকার মেলেনি। দীর্ঘ দুইবছর ধরে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে চলছে এই অবৈধ বালু উত্তোলন কারিরা। এ ব্যাপারে পীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসের সাথে যোগাযোগে কোন সারা পাওয়া যায় নাই।