ঢাকারবিবার, ২৪শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, দুপুর ২:৩৮
আজকের সর্বশেষ সবখবর

উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক পদ হারালেন গোলাম রব্বানী সরকার

বিডি আলো ডেস্ক
অক্টোবর ৭, ২০২১ ৭:২৫ অপরাহ্ণ
পঠিত: 139 বার
Link Copied!

মোঃ আলিমুল ইসলাম,জেলা প্রতিনিধি,কুড়িগ্রামঃ

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক নিয়ম না মানায় কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পদে থাকা গোলাম রাব্বানী সরকারকে উক্ত পদ থেকে অব্যাহতি প্রদান করা হয়।

গত ৩রা অক্টোবর কুড়িগ্রাম জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরিত একটি পত্রে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি প্রদাণ প্রসঙ্গটি উল্লেখ্ করে গোলাম রাব্বানী সরকারকে পত্রটি পাঠানো হয়েছে।

জানা গেছে, গত ৩১শে মার্চ, ২০১৯ইং তারিখ ফুলবাড়ী উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত নির্বাচনে “উপজেলা চেয়ারম্যান” পদে কেন্দ্র থেকে স্থানীয় দলীয় সকলকে নৌকা প্রতীক মনোনীত প্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ আতাউর রহমান শেখ এর পাশে থেকে ভোট করার নির্দেশনা দেয়। কিন্তু উপজেলা চেয়ারম্যান পদে গোলাম রব্বানী সরকার বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন না পাওয়ায় নৌকার বিরুদ্ধে স্বতন্ত্র প্রার্থী (বিদ্রোহী) হিসেবে মটরসাইকেল মার্কা নিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেন। এ নির্বাচনে তিনি দলীয় পদের প্রভাব দেখিয়েছেন এরকম ব্যাপক অভিযোগ রয়েছে।

জানা যায়, তিনি তাঁর দলীয় পদ ব্যবহার করে নির্বাচনে ফুলবাড়ী উপজেলার কয়েকটি কেন্দ্রে প্রভাব খাটিয়ে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী,তথা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে জয়লাভ করেন। গত উপজেলা নির্বাচনে বিএনপি’র অনেক নেতাকর্মী তার পক্ষে কাজ করেন। উপজেলা নির্বাচনে জয়লাভ করার পর তার সমর্থনকারী লোকজন ও বিএনপি’র অনেক নেতাকর্মী মিলে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন কর্মী ও আওয়ামী লীগ সমর্থিত সাধারণ ভোটারদের উপর নির্মম অত্যাচার করেন।ভেঙে দেওয়া হয় অনেকের ঘড়-বাড়ী ও দোকানপাট, আগুনে জ্বালিয়ে দেন নৌকা প্রতীক। নৌকা প্রতীকের পক্ষে কাজ করায় ফুলবাড়ী উপজেলার সদর ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান হারুন-অর-রশিদ কে অতর্কিতভাবে হামলা করে বেধড়ক মারধর করে রক্তাক্ত করে রব্বানী সরকার ও তার সর্মথনকারীরা। বাদ যায়নি শিমুলবাড়ী ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান এজাহার আলী। গোলাম রব্বানী সরকারের সমর্থিত লোকজনরা তাকেও বিভিন্ন ভাবে অপমান অপদস্ত করেন এবং ভয়-ভীতি দেখান। এছাড়াও বিএনপি’র প্রভাবশালী নেতাকর্মীদের সাথে উঠা-বসা ও তাদেরকে সাথে নিয়ে ভোটে অংশ নেয়া বিষয়টি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জেলা ও কেন্দ্রীয় কমিটি কাছে স্থানীয় নেতাকর্মীগন অভিযোগ করলে গোলাম রব্বানী সরকারকে কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে কারণ দর্শানো নোটিশ প্রদান করে। তিনি কারণ দর্শানো নোটিশের জবাব তার মত করে প্রদান করেন। পরবর্তীতে কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে তার বিরুদ্ধে অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত করলে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ সমুহের সত্যতা পায়।

বাংলাদেশের আওয়ামী লীগের বিরোধীতা করা, দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ ও কেন্দ্রীয় কমিটির আদেশ না মানায় বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে কুড়িগ্রাম জেলা কমিটির নিকট তাকে সাধারন সম্পাদক পদ থেকে সরানোর নির্দেশনা দেয়। তাই ৩রা অক্টোবর ২০২১ইং তারিখে কুড়িগ্রাম জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি-মোঃ জাফর আলী ও সাধারণ সম্পাদক-আমান উদ্দিন আহমেদ মঞ্জু স্বাক্ষরিত এক নোটিশে ফুলবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে গোলাম রব্বানী সরকারকে অব্যাহতি দেন। তবে তিনি আওয়ামী লীগের একজন সাধারণ সদস্য হিসেবে দলীয় কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণ করতে পারবেন বলে এ চিঠিতে উল্লেখ রয়েছে।

তার এই বহিষ্কারের খবর একটি অবিস্মরনীয় এবং দূরদর্শী সিদ্ধান্ত বলে মনে করেন ফুলবাড়ী উপজেলার নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেক নেতা-কর্মী। গোলাম রব্বানী সরকারের অব্যাহতির খবর শুনে ফুলবাড়ী উপজেলা আওয়ামীলীগের সকল নেতাকর্মী ও সাধারন মানুষ অনেক খুশী হয়েছে বলে জানা যায়।।

এ ঘটনার সত্যতা সম্পর্কে জানতে চাইলে কুড়িগ্রাম জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমান উদ্দিন আহমেদ মঞ্জু বলেন, “নৌকার বিরুদ্ধে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করা মানে আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়া যেটি আওয়ামী লীগের গঠনতন্ত্রকে অবমাননা করা। আমাদেরকে কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে তাকে পদ থেকে অব্যাহতি দেয়ার নির্দেশনা প্রদান করা হয়। এধরনের কর্মকান্ডের বিষয়ে আমাদের মুল দল কঠোর অবস্থানে রয়েছে । আওয়ামীলীগের পদে থেকে নৌকার বিরোধিতা করার কেউই ছাড় পাবে না। তাই দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে, কেন্দ্রের নির্দেশেই গোলাম রব্বানীর সরকারকে সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে অব্যাহতি প্রদান করা হয়েছে।

দৈনিক বাংলাদেশ আলো পত্রিকায় প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না